Ticker

6/recent/ticker-posts

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের মেসেজ না পেলে কি করবেন ? Lakshmi Bhandar Prakalpa

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প (Lakshmi Bhandar Scheme)


বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গৃহস্থ মহিলাদের আর্থিক সহায়তার জন্য একটি অভিনব প্রকল্প নিয়ে এসেছেন - এই প্রকল্পটির নাম ' লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প ' ( Lakshmi Bhandar Scheme)
এই প্রকল্পের আওতায় তফসিলী জাতি ও উপজাতি পরিবারের মহিলারা মাসিক ১০০০ টাকা ও বাকিরা অর্থাৎ জেনারেল ও ওবিসি ক্যাটাগরির মহিলারা মাসিক ৫০০ টাকা ভাতা পাবেন সরাসরি তাদের ব্যাংক একাউন্টে। 

কিভাবে আবেদন করবেন লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের জন্য ? 
এই লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে আবেদন করতে হবে অফলাইনে। দুয়ারে সরকার ক্যাম্পের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে এই প্রকল্পের ফর্ম পাওয়া যাবে যা পূরণ করে এবং সংশ্লিষ্ট নথি সহ সেই ক্যাম্পে জমা করতে হবে। 

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের জন্য কারা আবেদন করতে পারবেন ? 
👉 পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হতে হবে।
👉 একজন গৃহস্থ মহিলা হতে হবে।
👉 ২৫-৬০ বছর বয়স মহিলা।
এই শর্তগুলি যারা পূরণ করবেন তারাই আবেদন করতে পারবেন।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের জন্য কি কি ডকুমেন্ট লাগবে ? 
👉 রঙিন পাসপোর্ট সাইজ ছবি  
👉 স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের জেরক্স  
👉 আধার কার্ডের জেরক্স  
👉 SC/ST/ সার্টিফিকেট জেরক্স (If Any)
👉 ব্যাংক পাসবইয়ের প্রথম পৃষ্ঠার জেরক্স

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা কারা পাবেন না ? 

👉 যারা ইনকাম ট্যাক্স জমা করে। অর্থাৎ যাদের অর্থিক অবস্থা ভালো।
👉 স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড নেই।
👉 ২ হেক্টরের বেশি জমি আছে তাঁরা এই প্রকল্পের টাকা পাবেন না।
👉 সরকারি অবসরপ্রাপ্ত মহিলারা আবেদন করতে পারবেন না।
👉 কোনোরকম ভাতা পেলে আবেদন করা যাবেনা।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা কবে থেকে দেওয়া হবে ? 

এই প্রকল্পের কাজ ১৬ই আগষ্ট-১৫ সেপ্টেম্বর মাস থেকে শুরু হয়ে যাবে। প্রতিটা এলাকায় দূয়ারে সরকার প্রকল্পের মাধ্যমে আবেদন হবে। টাকা ব্যাঙ্কে আসা শুরু হবে ১ সেপ্টেম্বর থেকে। 

আপনার আবেদন অ্যাপ্রুভ হয়েছে কিভাবে জানবেন ? 
ফর্ম সঠিক ভাবে জমা হয়ে গেলে ফর্ম এ দেওয়া মোবাইল নম্বরে একটি কনফার্মেশন মেসেজ চলে আসবে।
Lakshmi Bhandar Scheme SMS

এই ধরনের একটি মেসেজ আসছে। এবং আবেদন টি মঞ্জুর হলে ফের একটি বেনিফিশিয়ারি নম্বর সহ আরেকটি এসএমএস আসছে। 
 যদিও এই মেসেজ নিয়ে অনেকের মধ্যেই কনফিউসন রয়েছে। যেমন অনেকেই এই ফর্ম জমা দেওয়ার পর মেসেজ টি পাচ্ছেন না। যার ফলে অনেকের মধ্যেই দুশ্চিন্তা দেখা দিচ্ছে। আজকের এই প্রতিবেদনের সেই বিষয়েই আলোচনা করা হবে। প্রথমেই বলবো আপনি যদি দুয়ারে সরকারে সঠিকভাবে ফর্ম টি জমা দিয়ে থাকেন , সেক্ষেত্রে চিন্তার কিছু নেই। পুরো রাজ্যজুড়ে একসাথে সবার এই কাজ চলছে। যার কারণে টেকনিক্যাল সমস্যার কারণেও অনেকসময় এসএমএস এসে পৌঁছায় না। তবে এতে সেভাবে দুশ্চিন্তার কোন কারন নেই। তবে আপনি ফর্ম জমা দেওয়ার পর যে অ্যাপ্লিকেশন আইডি নম্বর টি দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে থেকে পেয়েছিলেন সেটা নিয়ে গিয়ে আবার ক্যাম্পে একবার জিজ্ঞেস করে আসতে পারেন। সেখানে উপস্থিত আধিকারিকরা আপনাকে সঠিক তথ্য দিয়ে সাহায্য করে দেবেন। 

শেষে একটা কথায় বলবো, গুজব ছড়াবেন না , গুজবে কান দেবেন না। 


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

3 মন্তব্যসমূহ

  1. যদি লেখার সময় ভুল করে বাবা মা এর নামে র পদবী ভুল হয় তাহলে কি করতে হবে?
    হবে মোদক না লিখে সরকার লেখা হয়েগেছে
    দয়াকরে একটু বলবেন?

    উত্তরমুছুন